ওড়ো অবাধে হয়ে অবাধ্য
        অর্জিত হোক যা কিছু অসাধ্য...

 

 

  • ইটস ম্যাজিকাল, বিউটফুল,  এফোর্টলেস, রেভ্যুলেশনারি, কুল ইত্যাদি সব কমন কিছু  এডজেক্টিভ প্রত্যেকটি আইফোন ইভেন্টেই শোনা যায় । বাট প্রত্যেকটি আইফোনই কি ততটা রেভ্যুলেশনারি হয়? ২০১৪ এরপর থেকে এপল তাদের আইফোন ডিজাইনে খুব একটা পরিবর্তন আনে নি। আর অপর দিকে এপল এর অপোনেন্ট স্যামসং প্রতিবছরই মার্কেটে আনছে লেটেস্ট এন্ড গ্রেটেস্ট টেকনোলজি। কিন্তু এই বছরটা এপল শুধু  তাদের নিজের করার জন্যে সব ধরনের এফোর্টি দিচ্ছে ।  আর তাছাড়া এটি আইফোনের ১০ম এনিভার্সারি, তাই  অন্তত স্টিভ জবসের জন্যে হলেও একচুয়েল কিছু ইনোভেটিভ কাজ করার ইচ্ছা এপলের। তাই এবছরই তারা লঞ্চ করছে তিনটি ফ্ল্যাগশিপ ফোন। যথাক্রমে আইফোন ৭ এস, ৭ এস+ আর আইফোন ৮/ আইফোন এক্স / (শুধু)  আইফোন নামের তিনটি ফোন।

 

 

 

এই  ৩য় টি অর্থাৎ আইফোন ৮/ আইফোন এক্স/ আইফোনটি ( নাম নির্ধারণ হয়নি) হবে সব থেকে স্পেশাল এবং আইফোনের ১০ এনিভার্সারি উপলক্ষে স্পেশাল এডিসন।   আর এই নিয়েই টেক ওয়ার্ল্ডে শুরু হয়েছে রিউমারস এর বৃষ্টি। প্রতিদিন বেঞ্চমার্ক থেকে শুরু করে প্রোটোটাইপ কিংবা আসল ফোনটির ছবি লিক হচ্ছে। কিন্তু এসব সোর্সেস থেকেও তৈরী হয়েছে নানা কনফিউসন। আর এসব কনফিউশন এর কারণ হল টাচ আইডি/ ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর। কেননা  বেজেললেস ডিজাইন, পিছনে ভার্টিক্যাল ডুয়াল ক্যামেরা, গ্লাস ও এলুমিনিয়াম বডি, এমোলেড ডিসপ্লে , রাউন্ডেড কর্নারস  নিয়ে কারো মনে সন্দেহ নেই।  অনেক ট্রাস্টেড সোর্সের মতে আইফোনে থাকছে ভার্টিক্যাল ডুয়ো ক্যামেরা। তবে এই ক্যামেরা নিয়ে অনেকে সন্দিহান। কারো মতে এটি আগের জেনারেশনের আইফোনের মতোই ডুয়োল ক্যামেরা উইথ ইম্প্রুভমেন্ট, যেখানে থাকছে একটি নরমাল লেন্স  এবং আরেকটি টেলিফটো লেন্স

তবে  কিন্তু কিছু সোর্সের এর মতে এখানে আইফোন এ আর ( ওগম্যাণ্টেড  রিয়েলিটি) নিয়ে আস্তে পারে  । যদিও এর সম্ভাবনা খুবই কম । কিন্তু তারপরে সম্ভাবনা একেবারে উড়িয়ে দিলেই হবে না কারণ এপল এখন ফেসবুক এবং গুগল এর মত এ আর নিয়ে তাদের ইন্টারেস্ট সো করেছে তাদের রিসেন্ট ইভেন্টগুলোতে ।  তাছাড়া ফেস রেকিগনেশন এবং আইরিশ স্ক্যানার এর ইন্ট্রুডাকশনও হতে পারে। এবং ওয়্যারলেস চার্জিং তো থাকছেই । তবে টাচাইডি নিয়ে আপাতত তিনটি সম্ভাব্য কনসেপ্ট পাওয়া গিয়েছে। সেগুলো হলোঃ

 

 

১।  টাচ আইডি এম্বডেড অন্য ডিসপ্লেঃ পুরো স্ক্রিনটি ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর ! ডিসপ্লের যেখানেই টাচ করুক না কেন সেখানেই ফিঙ্গারপ্রিন্ট রিড করতে পারবে। এই স্বপ্নটি বহুদিন যাবতই সকল টেক প্রেমীরা  দেখে আসছে। প্রথমে কথা ছিল স্যামসাং এস৮ তাদের ফোনে এই ফিচারটি লঞ্চ করে পৃথিবীর সবার আগে এই টেকনোলজি ইন্ট্রডিউস করবে। কিন্তু টেকনিক্যাল ফল্ট  আর হলো না । অতঃপর রিউমারস ছড়াল স্যামসাং তাদের নোট লাইনআপে এই টেকনোলজি ইন্ট্রুডিউয়জ করবে। কিন্তু তাও কিছু সম্ভব হলো না । স্যামসাং বললো তারা এইটা নিয়ে আরও কাজ করছে এবং ফিউচারে এর ইমপ্লিমেন্টেশন হবে। কেননা সুপার এমোলেড ডিসপ্লে তে এই টাচ সেন্সর ইমপ্লিমেন্টেশন যথেষ্ট কষ্ট সাধ্য ।  স্যামসাং এর এই ব্যার্থতার পর  এখন সবার চোখ এপলের দিকে। তারা তাদের এই স্পেশাল এডিশনের ফোনে এম্বডেড টাচ আইডি লঞ্চ করবে অনেক লিকড ইমেজে এমনটা দেখা গেলে এটা না হওয়ার রিপোর্টস ও অনেক ট্রাষ্টেড সোর্স থেকেই শোনা যাচ্ছে।

২। টাচ আইডি অন্য ব্যাকঃ অনেকে সোর্সের এর মতে আইফোন ৮ এর টাচ আইডি থাকবে পেছনে। হতে পারে সেটা গুগল পিক্সেলের মতো পিছে সার্কেল অথবা হতে পারে টাচ সেন্সর এপল লোগোতেই থাকবে এটি নিয়ে অনেক লিকড ইমেজেও এখন ইন্টারনেটে ঘুরপাক খাচ্ছে। তবে আপনি এন্ড্রোয়েড ফ্যান হন বা আইওএস সবাই অন্তত এইবার এই ফিচারটা রিয়েল লাইফে দেখতে চাচ্ছে। ইভেন অনেক স্কিমস ও পাওয়া গেছে যেখানে পিছে টাচ আইডি দেওয়া হয়েছে।

৩। টাচ আইডি অন্য সাইড পাওয়ার বাটনঃ সনি এক্সপেরিয়া লাইন আপের অনেক ফোনেই সাইড পাওয়ার বাটন / ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর এই ইমপ্লিমেন্টেশন দেখা যায়। এতে করে দুটো বেনিফিট প্রথম , ফোনের বর্ডার কমিয়ে এনে স্ক্রিন বড় করা যেতে পারে( যেটা সনি করেনি) আর দ্বিতীয় ফোনের ব্যাকটা ক্লিন আর সিম্পল রাখা যায়। রিউমারস কিং ভেঙি গেস্কিন এর মতে , এমনি   হতে পারে এপলের নেক্সট ফ্ল্যাগশিপ । পাশের সাইড বাটনেই টাচ সেন্সর । আর অনেক লিকড  ইমেজেই দেখা যাচ্ছে আইফোন ৮ এর  সাইড পাওয়ার বাটন আগের আইফোন গুলোর তুলনায় অনেক বড়। তবে এর ডাউনসাইড হলো  যে ফোনটির থিকনেস বেড়ে যেতে পারে।

  • বর্তমানে টেক ইন্ডাস্ট্রিতে এপল অনেক বড় নাম। আর তার প্রমাণ এপলের লাস্ট ১০ বছরেরও বেশি ডোমিনেন্সই প্রকাশ পায় ।  তবে এপল এর মত টেক জায়ান্ট এরও এইবার আইফোন ৮ লঞ্চ করতে বেগ পেতে হচ্ছে। কেননা প্রথবারের মত এমোলেড নিয়ে আসছে এপল আর তাছাড়া টাচ আইডি সহ ডিসপ্লে নিয়েও অনেক ঝামেলা পোহাতে হচ্ছে এপলের। যার জন্য আইফোনের লঞ্চিং ডেট পিছানোর সম্ভাবনাও অনেক বেশি । প্রতিবছর সেপ্টেম্বরে আইফোন লঞ্চ করে থাকলেও এবার কিছুটা ডিলে করে অক্টোবরে লঞ্চ হতে পারে ।  শেষমেষ কি হয় এখন এটাই দেখার অপেক্ষা।