ওড়ো অবাধে হয়ে অবাধ্য
        অর্জিত হোক যা কিছু অসাধ্য...

 

ফটোগ্রাফির জন্য ফানুস একটা চমৎকার সাবজেক্ট। কিন্তু আমাদের দেশে ফানুস তেমন পাওয়া যায় না। পাওয়া গেলেও দাম অনেক বেশি। গুগোলে সার্স দিয়েও বাংলায় ফানুস তৈরির উপর তেমন কোন টিউটোরিয়াল পেলাম না। তাই নিজেই একটা টিউটোরিয়াল লিখে ফেললাম। এখানে দেখানো পদ্ধতি অনুযায়ী শুধুমাত্র ১০-১৫ টাকার মধ্যেই একটা ফানুস তৈরি করতে পারবেন।

তাহলে আসুন শুরু করি।

 

how_to_make_sky_lanterns (1)

[dropcap]১[/dropcap]  ফানুস তৈরির জন্য আপনার প্রথমেই প্রয়োজন হবে খুব পাতলা কাগজ। আপনি বড় কোন কাগজের দোকানে গিয়ে ঘুড়ির কাগজের কথা বললেই পেয়ে যাবেন। একটি ফানুস বানাতে সাধারনত কমপক্ষে চারটি কাগজ প্রয়োজন হয়।

 

 

how_to_make_sky_lanterns (2)

[dropcap]২[/dropcap] এরপর সবগুলো কাগজ একটির উপর একটি রেখে একসাথে করে নিন।

 

Skylantern-Gore-Pattern

 উপরের চিত্রে ফানুসের প্রকৃত আকার দেখানো হলো। আমাদের দেশে খুচরা বাজারে সাধারণত এতো বড় মাপের কাগজ পাওয়া যায় না। আপনি প্রয়োজনে আপনার কাগজ জোড়া দিয়েও এই আকারের ফানুস তৈরি করতে পারবেন। এক্ষেত্রে কাগজগুলোর আকার দৈর্ঘ্যে কমপক্ষে ৪০ ইঞ্চি আর প্রস্থে ২২ ইঞ্চি হওয়া প্রয়োজন।

অথবা,

আমাদের দেশে সাধারনত দিস্তা হিসেবে যেগুলো কাগজ পাওয়া যায় সেগুলোর আকার হয় সাধারণত দৈর্ঘ্যে ৩০ ইঞ্চি আর প্রস্থে ১৮ ইঞ্চি। এগুলো দিয়েও তৈরি করতে পারবেন।

 

how_to_make_sky_lanterns (3)

[dropcap]৩[/dropcap] সব গুলো কাগজ মাঝ বরাবর ভাজ করুন।

how_to_make_sky_lanterns (4)

 

 

[dropcap]৪[/dropcap] বড় আকারের কাগজে করতে হলে ভাজ করা কাগজগুলো দৈর্ঘ্য ৪০ ইঞ্চি, মাঝখানে (২২/২)= ১১ ইঞ্চি এবং শেষে (১২/২)= ৬ ইঞ্চি আকারে কেটে নিন। (চিত্র 4)

অথবা,

ছোট আকারের কাগজ হলে কাগজগুলো দৈর্ঘ্য ৩০ ইঞ্চি, মাঝখানে (১৮/২)= ৯ ইঞ্চি এবং শেষে (১২/২)= ৬ ইঞ্চি আকারে কেটে নিন। (চিত্র 4)

 

how_to_make_sky_lanterns (5)

[dropcap]৫[/dropcap] কাগজগুলো কাটার পর দেখতে এইরকম হবে।

 

how_to_make_sky_lanterns (6)

[dropcap]৬[/dropcap] এবং ভাজ খুললে এমন হবে।
image

[dropcap]৭[/dropcap] এবার একটি কাগজ আলাদা করে নিয়ে চিত্রের মত কাগজটির এক পাশে আঠা লাগান।
image
[dropcap]৮[/dropcap] এবার আর একটি কাগজ আঠা লাগানো কাগজটির উপর বসান। (চিত্রের মত)
image

[dropcap]৯[/dropcap] কাগজটি ভালোভাবে বসিয়ে উপরের কাগজটির আর এক পাশ উল্টিয়ে নিন।
image
[dropcap]১০[/dropcap] উপরে বসানো কাগজটির উল্টানো পাশের কোনা বরাবর পূর্বের মত আঠা লাগিয়ে নিন।
image

[dropcap]১১[/dropcap] এবার এটির উপর আর একটি কাগজ পূর্বের মত সেট করুন।
image

[dropcap]১২[/dropcap] এই কাগজটিরও এক পাশ উল্টে নিন।
image

[dropcap]১৩[/dropcap] এবার ৩ টি কাগজ লাগানো হয়ে গেছে। তাই চিত্রের মত শেষে লাগানো কাগজটির আর প্রথমে লাগানো কাগজটির উভয়টির কিনারে আঠা লাগিয়ে নিন।
image

[dropcap]১৪[/dropcap] এবার শেষ অর্থাৎ ৪ নং কাগজটি পূর্বে আঠা লাগানো কাগজগুলোর উপর বসিয়ে দিন

আবার আঠা শুকাতে দিন। আঠা শুকিয়ে গেলে খুলে দেখুন ফানুসের প্রায় তৈরি।

 

image

জি আই তার

কিন্তু সব কাজ এখনো শেষ হয়নি। এবার আমাদের প্রয়োজন হবে একটু মোটা তার।

হার্ডওয়ারের দোকানে গিয়ে জি আই (G.I) তার বললেই পেয়ে যাবেন। বিভিন্ন মাপের জি আই তার পাবেন। তবে আমাদের কাজের জন্য মোটামুটি চিকন জি আই তার প্রয়োজন।

 

image
[dropcap]১৫[/dropcap] এখন জি আই তার নিয়ে চার ফুট আকারে একটুকরা তার কেটে নিন। তারপর তারটি পেচিয়ে গোল করুন। তারের মাথা দুটি একসাথে আটকে দিন। ছোট আকারের আরো দুটি তার কেটে নিন। সেগুলো চিত্রের মত গোল তারটির সাথে আটকে দিন।

 

how_to_make_sky_lanterns (16)
[dropcap]১৬[/dropcap] এইবার জি আই তাদের ফর্মাটির সাথে কাগজের তৈরি ফানুসের ফর্মাটিকে আঠা দিয়ে ভালো করে সব দিক পেচিয়ে লাগিয়ে দিন। তাহলেই তৈরি হয়ে যাবে আমাদের কাংখিত ফানুসটি।

এবার ফানুস ওড়ানোর জন্য প্রয়োজন ফানুসের জ্বালানি।
image

[dropcap]১৭[/dropcap] জ্বালানি তৈরির জন্য আমাদের প্রয়োজন মোম আর কাপড়ের ব্যান্ডেজ। এই মোম কিন্তু মোমবাতি নয়। বাজারে খুব কম দামে কেজি হিসেবে মোম কিনতে পাবেন। আর কাপড়ের ব্যান্ডের সব সার্জিক্যালের দোকানেই পাবেন।

 
image

[dropcap]১৮[/dropcap] প্রথমে একটা পাত্রে মোম গলিয়ে নিন। তারপর ব্যান্ডেজ ১ফুট আকারে কেটে নিয়ে এই গলানো মোমে চুবিয়ে তুলুন। তারপর মোম শুকাতে দিন।

 

 

 

 

image
[dropcap]১৯[/dropcap] বেশী মোম লাগাবেন না। আর খেয়াল রাখবেন জ্বালানি যাতে বেশি ভারি হয়ে না যায়।

 
image

[dropcap]২০[/dropcap] এরপর তৈরি হওয়া ব্যান্ডেজ-মোম জ্বালানির মাঝে চিকন গুনা বা তার বেধে নিন। আপনার ফানুসের জ্বালানি প্রস্তুত।

 

এবার ফানুস উড়াবার পালা। তৈরি করা ফানুসের মধ্যে যেখানে জি আই তার দুটি পরস্পরকে ক্রস করেছে সেখানে জ্বালানির তারটির সাহায্যে জ্বালানিটি বেধে দিন। তারপর জ্বালানিতে আগুন ধরিয়ে দিন। কিছুক্ষণ আগুন জ্বললেই ফানুসটি ফুলে উঠবে। তারপর আস্তে আস্তে উপরের দিকে টান বাড়বে। কিছুক্ষন ধরে থাকুন। টান বেড়ে গেলে আস্তে করে ছেড়ে দিন। ফানুস আস্তে আস্তে উপরে উঠে যাবে।

শেষ কথাঃ

ভালো করে খেয়াল করুন কাগজের কোথাও যেন ছেড়া না থাকে বা আঠা কোথাও যেন খোলা না থেকে গরম বাতাস না বের হয়ে যায়। কারন গরম বাতাসই ফানুসকে উপরে টেনে নিয়ে যায়।
ফানুস ছাড়ার সময় যাতে এক দিকে কাত না হয়ে যায়। এতে ফানুস এক দিকে হেলে আগুন ধরে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

এবার আসি খরচের ব্যাপারে। এখানে ফানুস তৈরির খরচ দেয়া হলোঃ

[table id=1 /]

মোঠামুটি মাঝারি আকারের একটি ফানুস তৈরি করতে আমাদের লাগবে মাত্র ১২ টাকা। আর বড় ফানুস তৈরি করতে কয়েকটি কাগজ বেশি লাগতে পারে। কিন্তু একটি ফানুস তৈরি করতে ২০ টাকার বেশি খরচ হবেনা বললেই চলে। জায়গা ভেদে জিনিসপত্রের দাম কিছুটা কম বা বেশি হতে পারে।

সবাইকে ধন্যবাদ। ভালো থাকবেন।