ওড়ো অবাধে হয়ে অবাধ্য
        অর্জিত হোক যা কিছু অসাধ্য...

জিরো থেকে হিরো! শুরুতে ব্যান্ডের নাম ছিল জিরো, সেখান থেকে হাইব্রিড থিওরি। নাম নিয়ে জটিলতা থাকায় আবার পরিবর্তন, এবার রাখা হয় লিংকন পার্ক, এখানেও জটিলতা, তাই রাখা হলো লিনকিন পার্ক!

এ রকম ভুল নিয়েই খ্যাতির চূড়ায় পৌঁছে যায় ব্যান্ড লিনকিন পার্ক। আটলান্টিকের পশ্চিম থেকে পূর্ব, ইউরোপ মধ্যপ্রাচ্য হয়ে এশিয়া আফ্রিকায় ছড়িয়ে পরে লিনকিন পার্কের খ্যাতি!

অল্টারনেটিভ রক নিয়া কাজ করা আরও অনেক ব্যান্ড থাকলেও তাদের খ্যাতি এতো দূর পৌঁছায় নাই। বাংলাদেশের মত দেশে এই রকম পাইকারি হারে জনপ্রিয়তা কোন ব্যান্ডের নাই। বাংলাদেশে মেটালিকা, মেগাডেথ, প্যান্টারা, ল্যাম্ব অব গড, চিলড্রেন অব বডম, আয়রন মেইডেন, পিংক ফ্লয়েডের জনপ্রিয়তা প্রচুর, তবে লিনকিন পার্কের কাছে এরা সংখ্যালঘু! লিনকিন পার্কের অন্যতম বৈশিষ্ট্য ছিল গান নিয়ে তাদের সৃজনশীলতা আর ব্যতিক্রমধর্মিতা।

 Linkin Park এর Billboard top 10 মিউজিক নিয়েই আমাদের এই আয়োজন…

কৃতজ্ঞতাঃ অপ্রস্তুত লেনিন, Billboard